কুরআন ও হাদীসের আলোকে সুখী হওয়ার ১২ টি চাবি

কুরআন ও হাদীসের আলোকে সুখী হওয়ার ১২ টি চাবি

১/ আজকের জন্য বাঁচুন; কেননা ‘আগামীকাল’ এখনো জন্মই নেয়নি।
“সকালে জেগে উঠলে বিকেল পর্যন্ত বেঁচে থাকার আশা রেখো না। এবং বিকেলে বেঁচে থাকলে সকালে জেগে উঠার আশা রেখো না।”
(সহীহ আল-বুখারী)
.
২/ অন্তরে শান্তি পাচ্ছেন না? তাহলে আল্লাহকে বারবার স্মরণ করুন।
“যারা বিশ্বাস করেছে এবং আল্লাহর স্মরণে যাদের অন্তর প্রশান্ত হয়। জেনে রেখো, অন্তর আল্লাহর স্মরণেই প্রশান্তি লাভ করে।”
(সূরা রাদ, ২৮)
.
৩/ উত্তম উপদেশ আপনার জন্য কল্যাণকর; যদিও তা কখনো তিক্ত মনে হয়, তাকে ছুটে যেতে দেবেন না।
“এক মুসলিমের প্রতি অপর মুসলিমের ছয়টি অধিকার রয়েছে”(তার একটি হচ্ছে)”যখন সে কোনো উপদেশ চায়, তাকে উপদেশ দাও।”
(সহীহ মুসলিম)
.
৪/ আপনি আল্লাহর ভালোবাসা লাভ করলে জীবনে কষ্ট-ক্লেশের জন্যও প্রস্তুত থাকুন।
“পরীক্ষা যত কঠিন হয়, পুরষ্কার তত বড় হয়। আর আল্লাহ তা’আলা তাদেরকে পরীক্ষায় ফেলেন, যাদের তিনি ভালোবাসেন।”
(আত-তিরমীযি)
.
৫/ অন্যের ধন্যবাদ আশা করবেন না। নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যান।
“(তারা বলে)শুধু আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে আমরা তোমাদেরকে অন্নদান করি, আমরা তোমাদের নিকট হতে প্রতিদান চাই না, কৃতজ্ঞতাও নয়।”
(সূরা আল-ইনসান, ৯)
.
৬/ মনে রাখবেন, মানুষ যা আশংকা করে ভীত হয়, তার অধিকাংশই ঘটে না।
“ঐ তো শয়তান; যে তার বন্ধুদের ভয় দেখায়..”
(সূরা আলি ইমরান, ১৭৫)
.
৭/ কখনো ভুলে যাবেন না,আপনার পাপের তুলনায় আল্লাহর দয়া এবং ক্ষমা করার সামর্থ্য অনেক বেশী।
“নিশ্চয় তোমার প্রতিপালক অপরিসীম ক্ষমাশীল।
(সূরা আন-নাজম, ৩২)
.
৮/ বিশ্বাস রাখুন, আপনি যদি খাটি মুমিন হয়ে থাকেন দিন শেষে আপনিই হবেন বিজয়ী।
“মুমিনের বিষয়টা কতই না আশ্চর্যজনক! তার সাথে যাই ঘটে, কেবল কল্যাণই বয়ে আনে।
(সহীহ মুসলিম)
.
৯/ আপনার রিজিক মানুষের হাতে নয়- এই ব্যাপারে নিশ্চিত থাকুন এবং নির্ভয়ে কাজ করে যান। ঈমান রাখুন এই বাক্যে,
“আকাশে রয়েছে তোমাদের রুযী ও প্রতিশ্রুত সবকিছু।”
(সূরা আয-যারিয়াত, ২২)
.
১০/ ভাল কাজে সদা ব্যস্ত থাকুন, কেননা অলস সময় নিকৃষ্ট শত্রু।
“অতএব যখনই অবসর পাও, তখনই (আল্লাহর ইবাদতে) সচেষ্ট হও”
(সূরা আশ-শাহর, ৯৪: ৭)
.
১১/ জেনে রাখুন, যার ওপর আপনি তীব্রভাবে বিরক্ত, ক্রোধান্বিত; তার চেয়ে আপনাকেই বেশী ভোগাবে এই বিরক্তি।
“ইয়া আল্লাহ! ..আমার অন্তর থেকে আক্রোশ দূর করে দিন”
(আত-তিরমীযি)
.
১২/ আল্লাহর প্রতি বিশ্বাস রাখা এবং নেক আমল করতে থাকা- এ হচ্ছে সুখ লাভের পরশপাথর।
“পুরুষ ও নারী যে কেউই বিশ্বাসী হয়ে সৎকর্ম করবে, তাকে আমি নিশ্চয়ই পবিত্র জীবন দান করব এবং তাদের কর্ম অপেক্ষা শ্রেষ্ঠ পুরষ্কার তাদেরকে দান করব।”
(সূরা আন-নাহল, ৯৭)
.
আপনাকে বলা হচ্ছে না এগুলো মুখস্থ করতে, বরং সর্বোচ্চ চেষ্টাটুকু করুন। কেননা প্রত্যহ জীবনে সুখ লাভের জন্য এগুলো আমাদের সবার প্রয়োজন। বারবার প্রয়োজন।
.
[শায়খ আলী হাম্মুদা (হাফি.) পেইজ থেকে অনূদিত]

Share Button