একটি সন্তানকে সুশিক্ষিত করার পেছনে কার সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা থাকা উচিত?

একটি সন্তানকে সুশিক্ষিত করে গড়ে তুলতে মেয়েদেরকে শিক্ষিত হওয়া সবচেয়ে বেশী প্রয়োজন. কারন, মেয়েরাই ভবিষ্যতে একজন মা হবে আর একজন শিক্ষিত মা পারবেন একটি ছেলেকে সুশিক্ষিত করে গড়ে তুলতে.

আমি কোন ডিগ্রি নিয়ে শিক্ষার কথা বলছি না. আমি সেই শিক্ষার কথা বলছি, যেই শিক্ষা ছোটবেলা থেকে একটি শিশুর মানুসিক বিকাশ ঘটায়. আমি সেই শিক্ষার কথা বলছি, যেই শিক্ষা পাওয়ার পর কোন ছেলে কোন মেয়ের দিকে খারাপ নজরে তাকাবে না, কোন শিশু বা মেয়ে ধর্ষিতা হবে না.
ধরে নাও…তুমি একজন মা, মানসম্মান রক্ষার জন্যে যেমনিভাবে তোমার মেয়েকে সচেতন করে বড় করছো, একইভাবে তোমার ছেলে কে সচেতন করে বড় করে তোলা উচিত নয় কি?

মেয়ে হলে যে মেয়ের মা হিসেবে মেয়েকে শুধু মানসম্মানের জন্যে ভাবতে হবে সেটি কি আসলে সঠিক?
ছেলেরা কি পরিবারে জন্মগ্রহন করে না?
তাদের কি কোন মানসম্মান নেই?
শুধু মেয়েদেরকে নই
ছেলেদেরকে ও আমাদের সচেতন করে গড়ে তুলতে হবে.একটি মেয়ে যেমন কোন না কোন পরিবারে জন্মগ্রহন করে!
ঠিক তেমনি করে একটি ছেলে ও কোন না কোন পরিবারে জন্মগ্রহন করে.
জন্মগ্রহন করার পরে পরিবারে বড় হয়.ভালো মন্দ,আচার,আচরন পরিবার থেকে শিখে.

আমাদের প্রাথমিক শিক্ষালয় হচ্ছে আমাদের পরিবার. আর পরিবারে আমরা যা শিখি তার বেশির ভাগই মায়ের কাছে শিখে.তারপরে শিখতে যায় স্কুল, কলেজ, এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে.

তাই তুমি একজন মা হিসেবে তোমার পরিবারে ছেলে হোক আর মেয়ে হোক ব্যবধান না করে একই রকম শিক্ষা প্রদান করতে পারো.

তোমার ছেলে হলে যে হাত পা গুটিয়ে বসে থাকতে হবে তা কিন্তু নই. ছোটবেলা থেকেই মেয়েকে যেমন মানসম্মান রক্ষার জন্যে সচেতন করে তুলতে হয়,একইভাবে ছেলেকে ও মানসম্মান রক্ষার জন্যে সচেতন করে তোলা উচিত.

আবার তোমার ছেলে বা মেয়ে কার সাথে চলাফের করে, সেই দিকে ও মায়েদের খেয়াল রাখা উচিত. আবার কোন অন্যায় কাজ করলে,ছেলে হোক আর মেয়ে হোক সেটা ছোটবেলা থেকেই পরিবারে শাসন করা উচিত.

প্রাথমিক শিক্ষা

Share Button