নোয়াখালীতে আওয়ামী লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

 

নোয়াখালী সদর উপজেলার আণ্ডারচর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাশেমকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

৪ মার্চ শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে তাকে গুলি করে দুর্বৃত্তরা। গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে   নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পর তার মৃত্যু হয়।

নিহত আবুল হাশেম ওই ইউনিয়নের পূর্ব মাইজচারা এলাকার আবুল খায়েরের ছেলে। স্থানীয়দের দাবি, দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে।

নোয়াখালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এপ্রিলে ভারত সফরে যেতে পারেন প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা: আগামী এপ্রিলে ভারত সফর করতে পারেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২৩ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে ভারতের পররাষ্ট্রসচিব এস জয়শঙ্কর এক সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। সাক্ষাৎ শেষে প্রধানমন্ত্রীর উপপ্রেস সচিব নজরুল ইসলাম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। নজরুল ইসলাম জানান, এপ্রিলের প্রথমার্ধে প্রধানমন্ত্রী ভারত সফরে যেতে পারেন।

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আরও উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্রসচিব মো. শহীদুল হক। আর জয়শঙ্করের সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রীংলা। সেখানে প্রধানমন্ত্রী সফর ছাড়াও দুই দেশের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা হয়।

এর আগে প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে যাওয়ার কথা থাকলেও তা দুইবার পেছানো হয়। এবার দিল্লি সফরের সময় ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির অতিথি হিসেবে শেখ হাসিনা রাষ্ট্রপতি ভবনে থাকবেন। এই প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের কোনো প্রধানমন্ত্রীকে এই সম্মান জানানো হচ্ছে।

আগামীকাল শুক্রবার সকালে ভারতের পররাষ্ট্রসচিব এসজয়শঙ্করের ঢাকা ছাড়ার কথা রয়েছে।

‘ট্রাম্প সমর্থক ছাড়া রুমমেট চাই’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রুমমেটের জন্য ট্রাম্প সমর্থকদের আবেদন করার দরকার নেই এমন বিজ্ঞাপন দিয়েই আলোচনায় এসেছেন যুক্তরাষ্ট্রের জর্জটাউন ইউনিভার্সিটির এক ছাত্রী। ইরানি বংশোদ্ভূত ওই মার্কিন নাগরিকের নাম শাহার কিয়ান। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের। খবরে বলা হয়, শাহার কিয়ান পত্রিকার শ্রেণিভুক্ত বিজ্ঞাপনের পাতায় রুমমেট চেয়ে আবেদন করেন। এতে রুমমেট হতে আগ্রহীদের জন্য তিনি বেশ কিছু শর্ত দিয়েছেন।

কিয়ানের শর্তের মধ্যে যেমন মাদকাসক্ত, পোষা প্রাণী ও মাংস বিক্রেতারা রুমমেট হতে পারবেন না, তেমনি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে সমর্থন করেন এমন ব্যক্তিও আবেদন করার যোগ্য নন। এতে তিনি স্পষ্ট লিখেছেন, ট্রাম্প সমর্থকদের আবেদন করার দরকার নেই।

গত ২০ জানুয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্প দায়িত্ব নেওয়ার পর ২৩ বছর বয়সী কিয়ানই প্রথম যিনি পত্রিকায় এভাবে একটি দলের সমর্থকদের ‌‘না’ জানিয়ে বিজ্ঞাপন দিলেন। কিয়ান পড়ালেখার পাশাপাশি মধ্যপাচ্য ও আফ্রিকানদের শিক্ষা নিয়ে কাজ করে এনজিও ‘অ্যামিডেস্টে’ চাকরি করেন। ইরানি বংশোদ্ভূত মার্কিন এই তরুণী তার ভবনের শীর্ষতলার ওই রুম ভাগাভাগির জন্য এক হাজার ৩০০ ডলার প্রদানের কথা বলেছেন। বাড়িটির নিচতলায় তার বাবা-মা বসবাস করেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

ওয়াশিংটন ডিসিতে প্রবেশনারি হিসেবে যারা চাকরি করেন, এভাবে একাধিক ব্যক্তি রুম ভাভাভাগি করে বসবাস করেন। এখানে মাঝারি ধরনের একটি রুমের মাসিক ভাড়া এক হাজার ৯৯০ ডলারের মতো। কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিজয়ের পর রাজনৈতিক ডামাডোলে ভাড়ার এই হার বেড়েই চলেছে। এরপর থেকে টুইটার, রেডিট, ক্রেগলিস্ট এবং ফেসবুকে রুম ভাগাভাগি করে বসবাসের জন্য বাসা ভাড়ার বিজ্ঞাপনও বেড়ে গেছে।

আইফোন ৮ আসছে…

প্রযুক্তি ডেস্ক: আইফোন মানেই উন্মাদনা। প্রযুক্তিপ্রেমীরা অ্যাপলের যেকোনো পণ্যের জন্য দীর্ঘ অপেক্ষায় থাকতেও রাজি আছেন। আর আইফোন ৮ এর জন্য আগ্রহ তো সীমা ছাড়িয়েছে। কারণ অ্যাপলের ১০ বছর পূর্তিতে বিশেষ সংস্করণ হিসাবে আসছে এই মডেলটি। অন্যান্য বারের চেয়ে এবার চাহিদা থাকবে অনেক বেশি। প্রতিবারই ক্রেতাদের চাহিদা মেটাতে হিমশিম খেয়ে যায় নির্মাতা। সেই কথা মাথায় রেখে এবার আগেভাগেই অনেক বেশি পরিমাণ আইফোন ৮ বানানোর পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে তারা।

বিভিন্ন প্রতিবেদনে বলা হয়, অন্যান্য বারের চেয়ে অনেক আগেই নতুন ফোন বানানো শুরু করবে কম্পানি। স্মার্টফোনের ধারণাই বদলে যাবে বলে আশা করছেন ভক্তরা। তাই আইফোন ৮ এর জন্য ক্রেতাদের লাইন যে ইতিহাস গড়বে তা আশা করাই যায়। ২০০৭ সালে প্রয়াত স্টিভ জবস যখন প্রথম আইফোন বাজারে আনেন, সেই দিনক্ষণের কয়েক মাস বাদেই আসছে আইফোন ৮।

এ বছরের জুন থেকে সাপ্লাই চেইন শুরু করবে অ্যাপল। আইফোন এসই, আইফোন ৭ ও ৭ প্লাস যে সময়টাতে বানানো শুরু হয়, তার অনেক আগেই থেকেই শুরু হবে আইফোন ৮ এর উৎপাদান প্রক্রিয়া। এ ছাড়া আইফোন ৭ এবং ৭ প্লাস উৎপাদনও আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে।

নতুন মডেলকে বলা হচ্ছে আইফোন ৮। কিন্তু এর সঙ্গে বরাবরের মতো আইফোন ৭এস ও ৭এস প্লাস আসবে বলেও ধারণা করছেন অনেকে।

অনেকে বলছেন, বাজারে আসার পর যেন আইফোন ৮ এর অভাব না দেখা দেয় সে বিষয়ে এবার সব ব্যবস্থা করে রাখবে অ্যাপল।

তাইওয়ানের এক সূত্রের উল্লেখ করে ডিজিটাইমস দাবি করেছে, নতুন ফোনের ক্ষেত্রে আইফোন বরাবরের সরবরাহকারী ফক্সকনকে বাদ দিয়েছে। আরেক নির্মাতা জাবিলের কাছ থেকে স্টেইনলেস স্টিলের দেহ বানিয়ে নিচ্ছে অ্যাপল।

সেই আইফোন ৪এস-এ শেষবারের মতো স্টেইনলেস স্টিলের দেহ ব্যবহার করা হয়েছিল। এরপর অ্যাপল অ্যালুমিনিয়াম কেস বেছে নেয়। আবারো ফিরতে চায় তারা সেই স্টিলে।

গুজব রয়েছে, কার্ভড ওলেড ডিসপ্লে মিলবে এবারের মডেলে। তবে ওলেড ডিসপ্লের বিষয়ে নিশ্চিত করেছেন কম্পানির উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা।

বারক্লেইস রিসার্চ অ্যানালিস্টদের মতে, চারদিকে কোনো সরু ফ্রেমে বন্দী থাকবে না পর্দা। ৫ ইঞ্চি এবং ৫.৮ ইঞ্চি পর্দার আইফোন আসেব নজরকাড়া ডিজাইন নিয়ে। ফ্রেম না থাকায় অনেক বড় দেখা যাবে পর্দা। আর কার্ভড স্ক্রিন হলে তো কথাই নেই।

যেহেতু পর্দার চারদিকে ফ্রেম থাকবে না, কাজেই আইফোনের আইকনিক হোম বাটন এবার না থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। আরেক গুজবে বলা হয়, আইফোন ৮ উন্নত থ্রিডি টাচ প্রযুক্তি নিয়ে আসবে।
সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

সবচেয়ে বেশী ব্যবহৃত পাসওয়ার্ড

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক: যদি আপনাকে প্রশ্ন করা হয় গত বছর কোন পাসওয়ার্ডটি সবচেয়ে বেশি ব্যবহার হয়েছে? আপনি হয়তো কয়েকবার মাথা চুলকে অনুমান করার চেষ্টা করবেন।

অনুমানের আগে জেনে নিন গতবছর সবচেয়ে বেশী ব্যবহৃত পাসওয়ার্ডটি হচ্ছে ‘123456’। এমনকি গত বছরেও সবচেয়ে কম শক্তিসম্পন্ন পাসওয়ার্ডের তালিকার মধ্যে আছে ‘password’ ও ‘123456’। আর এ বছরে সবচেয়ে ব্যবহৃত পাসওয়ার্ডের তালিকায় জায়গায় পেয়েছে ‘123456789’ ও ‘qwerty’। অনলাইনে ফাঁস হওয়া প্রায় এক কোটি পাসওয়ার্ড বিশ্লেষণ করে এ তথ্য জানিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পাসওয়ার্ড ব্যবস্থাপনা সংস্থা কিপার সিকিউরিটি।

এক্সপার্টদের ইনফরমেশন অনুযায়ী শীর্ষ ১০টি পাসওয়ার্ডের মধ্যে চারটিতে ছয় অক্ষর বা তার চেয়েও কম অক্ষর ব্যবহার করা হয়েছে। ওই তালিকায় স্থান পাওয়া পাসওয়ার্ডের মধ্যে রয়েছে—‘12345678’, ‘111111’, ‘1234567890’, ‘1234567’, ‘password’, ‘123123’, ‘987654321’।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওই সংস্থাটির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, এখনকার পাওয়ারফুল পাসওয়ার্ড ভাঙার সফটওয়্যারগুলোর কাছে এসব দুর্বল পাসওয়ার্ড ভাঙা কয়েক সেকেন্ডের বিষয়। যেসব ওয়েবসাইটে এই ধরণের পাসওয়ার্ড ব্যবহার হয় তার ইউজার হয় দায়িত্বজ্ঞানহীন কিংবা অলস। প্রায় ১৭ শতাংশ ইউজার তাঁদের অ্যাকাউন্টের সিকিউরিটি কোড ‘123456’ এই পাসওয়ার্ড দেন।

‘পদ্মাসেতুতে দুর্নীতি হয়নি, বিশ্বব্যাংকই করাপ্ট’

পদ্মাসেতু নিয়ে বিশ্বব্যাংকের মিথ্যা অভিযোগের সমালোচনা করে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, পদ্মাসেতুতে দুর্নীতি হয়নি এটা জেনেও তারা দুর্নীতির অভিযোগ এনেছে সেই বিশ্বব্যাংক ইটসেলফ দুর্নীতিবাজ। তারাই করাপ্ট। তারাই করাপ্ট গ্রাউন্ড এর উপর দাঁড়িয়ে আছে।

১২ ফেব্রুয়ারি রোববার জাতীয় সংসদের অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে একথা বলেন। পদ্মাসেতুতে কানাডার আদালত কোনো দুর্নীতির প্রমান পায়নি এসংক্রান্ত খবর প্রকাশিত হওয়ার পর এনিয়ে কথা বলেন তিনি।

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে উদ্দেশ্য করে মতিয়া বলেন, আমরা সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব চাই, শক্রুতা চাই না। তাই বলতে চাই বিহেভ হিউম্যানলি এন্ড জেনন্টেলমেনলি।

তিনি বলেন, যখন টেলিভিশনের দেখলাম কানাডার আদালত রায় দিয়েছে পদ্মাসেতুর কোনো দুর্নীতি তারা পাননি। এসেনসিন লাভনিং তারাও নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছে তখন আবেগে কন্ঠ রুদ্ধ হয়ে আসছিল।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিজের জন্য এই সেতু করতে চাননি। সারা জাতির উপকারের জন্য, দেশের উন্নয়নের জন্য চিন্তা করেছিলেন। অথচ এটাকে কেন্দ্র করে বিশ্বব্যাংক নিজেদের কি মনে করে জানি না । তবে তারা এতটা শক্তিশালী না। তাদের শক্তি ৩০ লাখ লোকের রক্ত ২ লাখ মা বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতাকে উপহাস করার শক্তি তাদের নেই। এই স্বাধীন দেশের মানুষকে অপমান করতে পারে এই শক্তি বিশ্বব্যাংকের আল্লাতালা দেন নাই।

তিনি বিশ্বব্যাংককে উদ্দেশ্য করে আরো তিনি বলেন, “ওখানে কিছু লোক বইয়া আছে, রিটায়ার। কারো কারো আবার নানান ধরনের কানেকশন। তার ভিত্তিতে ওইখানে বইসে কিছু টাকা নিয়া নাড়াচাড়া করে তারপর লম্বা লম্বা কথা বলে। ’

তিনি টিআইবির সমালোচনা করে বলেন, প্রতিষ্ঠাটি বলছে পদ্মাসেতুতে দুর্নীতি হয় নাই এজন্য বিশ্বব্যাংকের কাছে জবাবদিহীতা চাওয়া উচিত। আমরা চাইব কেন? আমাদের কাছে তো প্রমাণই আছে। কিন্তু টিআইবি আপনারা কি করছেন? আপনার কৈফিয়ত চান না কেন? আপনারা তো সমস্ত কিছুতে আমাদের সরকারের কাছে কৈফিয়ত চান। আসলে আপনারা চাইতে পারবেন না। কারণ যাদের বিভিন্ন জায়গায় সুতায় বাধা তারা এটি চাইতে পারবে না।

আসিফের ‘এই শোন’ ইউটিউবে প্রকাশ (ভিডিও)

বিনোদন ডেস্ক:অডিও শাসনের পর এবার ভিডিও সাম্রাজ্যে হানা দিতে প্রস্তুত জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবর। সাম্প্রতিক সময়ে মিউজিক ভিডিওর প্রতি বাড়তি নজর দিয়েছেন এই শিল্পী।

সেই ধারাবাহিকতায় ১১ ফেব্রুয়ারি শনিবার সিএমভি’র ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তি পেয়েছে তার নতুন একটি মিউজিক ভিডিও। ‘এই শোন’ শিরোনামে গানটিতে আসিফের সহশিল্পী হিসেবে আছেন সময়ের আরেক তরুণ জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী মোহনা।

আসিফ-মোহনার ব্যয়বহুল এ ভিডিওতে শিল্পীদ্বয় ছাড়াও রোমান্টিক মডেল জুটি হিসেবে অংশ নিয়েছেন সোহানা ও মাহিন। আর এটি নির্মাণ করেছেন যৌথভাবে তপু খান ও আনিসুর রহমান রাজীব।

গানটি প্রসঙ্গে আসিফ বলেন, ‘রোমান্টিক একটি গান। ভিডিওতে সুন্দর একটা গল্প আছে। আশা করছি শ্রোতা-দর্শকদের ভালোই লাগবে।’

এদিকে অন্য কণ্ঠশিল্পী মোহনা বলেন, ‘আসিফ ভাইয়ের সঙ্গে এর আগেও আমি গান করেছি। আমাদের গাওয়া প্রতিটি গান হিট হয়েছে। আশা করছি এই ভিডিওটিও জনপ্রিয়তা পাবে।’

‘এই শোন’ গানটি লিখেছেন জীবন মাহমুদ। মাহফুজ ইমরানের সুরে সংগীতায়োজন করেছেন মুশফিক লিটু। ভিডিও প্রকাশ করেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিএমভি।

নিঝুমদ্বীপে বিলুপ্তির পথে চিত্রা হরিণ

দেশে হরিণের অন্যতম অভয়ারন্য নোয়াখালীর নিঝুম দ্বীপ। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় বন উজাড় করে বসতি গড়ে তোলায় আবাসস্থল হারাচ্ছে হরিণ। পর্যটন আবর্ষণ হারাচ্ছে দ্বীপটি। পর্যটকদের দাবী এখনই বনটিকে রক্ষা করা না গেলে অচিরেই নিঝুমদ্বীপ থেকে বিলুপ্ত হবে হরিন।

বঙ্গোপসাগরের বুকে জেগে আছে দেশের অন্যতম বৃহৎ পর্যটন কেন্দ্র নিঝুমদ্বীপ। এ দ্বীপের প্রধান আকর্ষণ কয়েক হাজার হরিন। সরকার ২০০১ সালে জাতীয় উদ্যান ও হরিণের অভয়ারন্য হিসেবে ঘোষণা করে নিঝুমদ্বীপকে। স্থানীয়দের দাবী এক সময় এ বনে হরিণ ছিল ৩০ হাজার। বন উজাড় হওয়ায় এ সংখ্যা নেমে দাঁড়িয়েছে ১০ হাজারে।

নিঝুমদ্বীপে পর্যটকদের মূল আকর্ষণ হরিণ। গাছ কেটে বসতি গড়ে উঠায় আবাসস্থল হারাচ্ছে হরিণ। নিঝুমদ্বীপে গাছ ও হরিণ কমে যাওয়ায় ধীরেধীরে কমছে পর্যটক। হরিণ না দেখে হতাশ হয়ে ফিরতে হয় পর্যটকদের।

পর্যটকদের মতে দ্বীপের চারদিকে বেড়িবাঁধ না থাকায় নোনা পানি বনে ঢুকে হরিণের খাবার পানি ও খাদ্য সংকট দেখা দেয়।

নোয়াখালী-৬ আসনের সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদৌস বন উজাড় হওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, হরিণ বাঁচানোর জন্য যে কোন মূল্যে রক্ষা করতে হবে বন।

জেলা বন কর্মকর্তা আমীর হোসাইন চৌধুরী বলেন, মানুষ বন উজাড় করে বনে ঢুকে যাওয়ায় নিঝুমদ্বীপ ছেড়ে পার্শ্ববর্তী অন্য বনে চলে যাচ্ছে হরিণ।